,



আমি সম্পূর্ণ নির্দোষ, খালাস চাই : ডেসটিনির চেয়ারম্যান

বিশেষ প্রতিনিধি: সম্পদবিবরণী দাখিল না করার অভিযোগে দুদকের করা মামলায় নিজেকে নির্দোষ এবং খালাস চেয়ে লিখিত বক্তব্য দিয়েছেন ডেসটিনি গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মাদ হোসেন।

রোববার (৩ জুন) ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৬ এর বিচারক কে এম ইমরুল কায়েশের আদালতে আত্মপক্ষের সমর্থনে তিনি এই লিখিত বক্তব্য দেন।

লিখিত বক্তব্য তিনি বলেন, ‘মিথ্যা কাগজপত্র ও সাক্ষ্য সৃজন করেছেন মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা। তিনি বেআইনিভাবে অভিযোগপত্র দাখিল করেছেন এবং পরবর্তীতে আদালতে মিথ্যা সাক্ষ্য দিয়েছেন। আমি নির্দোষ এবং খালাস চাই। এই আমার বক্তব্য।’

রোববার কারাগার থেকে তাকে আদালতে হাজির করা হয়। যুক্তি উপস্থাপনের জন্য ৬ জুন দিন ধার্য করেছেন আদালত।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা গেছে, প্রাথমিক অনুসন্ধানে মোহাম্মাদ হোসেনের নামে-বেনামে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত ১৩ কোটি ১১ লাখ ৭১ হাজার ৫০৮ টাকার সম্পদের তথ্য পায় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এরপর ২০১৬ সালের ১৫ জুন ৭ কার্যদিবসের মধ্যে তাকে সম্পদের হিসাব দাখিল করার জন্য নোটিশ দেয় দুদক। নোটিশ দেয়ার সময় ডেসটিনির অর্থ আত্মসাতে দুদকের করা অর্থপাচার মামলায় তিনি কারাগারে ছিলেন। ওই বছর ২০ জুন তিনি কারাগারে দুদকের নোটিশ পান। এরপর তিনি আইনজীবীর মাধ্যমে হিসাব দাখিলের জন্য সময় চান। দুদক হিসাব দাখিলের জন্য আরও সাত কার্যদিবস সময় দিলেও পরে তিনি তার সম্পদের হিসাব দাখিল করেননি।

২০১৬ সালের ৮ সেপ্টেম্বর সম্পদের হিসাব দাখিল না করায় রাজধানীর রমনা থানায় তার বিরুদ্ধে নন-সাবমিশন মামলাটি করেন দুদকের সহকারী পরিচালক মো. সালাহউদ্দিন। ২০১৭ সালের ৬ জুন দুদকের সহকারী পরিচালক সালাহউদ্দিন আদালতে তার বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন। ওই বছরের ১৫ অক্টোবর এ মামলায় চার্জগঠন করেন আদালত। এ মামলায় সাত সাক্ষীর মধ্যে পাঁচজন বিভিন্ন সময়ে আদালতে সাক্ষ্য দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ