,



গীতিকার ও শিশু সাহিত্যিক রুবেল মাহমুদের প্রবন্ধ_ ” জীবন থেকেই সাহিত্য সংস্কৃতি ও বিনোদনের সৃষ্টি।”

” জীবন থেকেই সাহিত্য সংস্কৃতি ও বিনোদনের সৃষ্টি।”

-রুবেল মাহমুদ

পৃথিবীতে মানুষের জীবন আয়ু খুবই অল্প
কিন্তু জীবনের থেকেও বড় জীবনের গল্প।
আর এই গল্প কারো কারো জীবনে হয়ে থাকে অনেক বেশি আনন্দময়,
আবার কারো হয়ে থাকে অনেক বেশি বেদনাময়। এই আনন্দ বেদনার মিশ্রিত জীবনকে নিয়ে পৃথিবীতে নিত্যদিন ঘটে চলছে নানা রকমের শুভ অশুভ অনেক ঘটনা।
আর এই ঘটনাকেই ভিত্তি করে সৃষ্টি হয় খবর।
আমরা এই খবর দেখে থাকি পত্রিকার পাতায় , বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলে এবং চলমান সময়ে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ ফেইসবুক, ইউটিউবের মধ্যমে। মানুষের জীবন হলো একটি মলাটবদ্ধ শুভ্র খাতা, চরিত্র হলো একটি কলম যা দিয়ে রচনা হয় প্রতিটি মানব জীবনের ভালো মন্দের গল্প।
তাই প্রতিটি মানুষকেই ভাবতে হবে চরিত্রের কলমে জীবন খাতায় নিজের গল্পটা কি ভাবে সাজবে। পৃথিবীরি প্রতিটি মানুষই কিন্তু এক একটি শিক্ষনীয় মহাগ্রন্থ।
কিন্তু এই মানব গ্রন্থগুলো বেশির ভাগই রয়ে যায় অপ্রকাশিত। আবার অল্প কিছু গল্প হয়ে থাকে বিভিন্ন রূপে প্রকাশিত। যেমন জীবনে ঘটে যাওয়া ঘটনাকে এক জন কবি তার গভীর ভাবনায় ছন্দ অন্ত তাল দিয়ে ঘটনার সাথে মিল আছে এমন শব্দের নিপুণ গাঁথুনি দিয়ে রচনা করেন একটি বাস্তব জীবনের কবিতা।
ঠিক একি ভাবে উপন্যাসিক, গল্পকার, ছড়াকার, গীতিকার, চিত্রকার, নাট্যকার, প্রত্যেকেই যার যার নিয়মের মধ্যে থেকে চিন্তা শক্তি দিয়ে রচনা করেন বাস্তব জীবনের আনন্দ বেদনার আঁচড়ে কবিতা,ছড়া, গল্প, উপন্যাস,নাটক,গান, সিনেমা, ইত্যাদি।
এভাবেই পৃথিবীতে অল্প কিছু মানুষের গল্পগুলো প্রকাশিত হয়। আর বেশির ভাগ মানুষের জীবনের গল্পগুলো রয়ে যায় আড়ালে। তাই জনপ্রিয় গানের এই অংশটুকুর সাথে কণ্ঠ মিলিয়ে বলতে পারি –
“প্রতিদিন কতো খবর আসে যে
কাগজের পাতা ভরে,
জীবন পাতার অনেক খবর
রয়ে যায় অগোচরে”
এটাই চরম বাস্তবতা এটাই জীবন । প্রতিদিন কত খবর আসে কাগজের পাতায়, খবর আসে রেডিও- টেলিভিশনের পর্দায় ,তবুও কিছু খবর রয়ে যায় অগোচরে।
সব খবর হয় না কাগজে ছাপা,
কিছু খবর রয়ে যায় বুকের ভেতর পাথরে চাপা। এই চাপা ব্যথা যায় না কাওকে বলা আবার বুকে চেপে যায় না জীবনের পথ সুখে চলা। তাই জীবন হয়ে উঠে জীবন্ত লাশ।

এমন ব্যথায় জর্জরিত মানুষগুলো প্রায় সময় রাত জেগে থাকে চোখের ঘুম ম্লান করে। নীরব অশ্রুতে ভাসে কপোল, ভাসে বুকের জমিন ও বালিশের দেহ।
তাদের এই দুঃখগুলো শোনার যেনো কেউ নেই। আসলেই কেউ নেই ।বাস্তবতা বড়ই কঠিন ও নির্মম । কেউ কারো দুঃখ শোনার ও বুঝার চেষ্টা করে না এবং কেউ কাওকে একটু সময়‌ও দেয় না। এমন চিত্রের নিঠুরতা দেখে মনে পড়ে পুরোনো একটি গানের কিছুটা কথা-

“হায় এখন বুঝি দারুণ সময়
বদলে গেছে দিন,
কেউ আমারে চাই না দিতে
একটু সময় ঋণ।।”

জীবনের প্রত্যেকটি ঘটনায় হলো আমাদের সাহিত্য সাংস্কৃতি বিনোদন যা আমাদের জীবন থেকেই সৃষ্টি। কিন্তু প্রতিটি মানুষের জীবনের ঘটনা প্রকাশিত হয়ে উঠে না শিল্প সাহিত্যের মাধ্যমে বিভিন্ন রূপে। জীবন একটি সাহিত্যের ভূবন সাহিত্যের সব শাখায় রয়েছে জীবনের ছোঁয়া। জীবন মানেই গ্রন্থ, জীবন মানেই সাহিত্য, সাহিত্য মানেই জীবন।

রুবেল মাহমুদ
গীতিকার ও শিশুসাহিত্যিক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ