,



আলোচিত সেই সেফুদার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক লাইভে পবিত্র কোরআনকে অবমাননা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ণ বিভিন্ন মন্তব্য করার অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলায় অস্ট্রিয়ার ভিয়েনা প্রবাসী সেই সেফুদার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

গত ২৯ এপ্রিল বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আস শামস জগলুল হোসেন এই পরোয়ানা জারি করেন। তবে আজ বুধবার তা প্রকাশ পায়।

ট্রাইব্যুনাল গ্রেপ্তারি পরোয়ানা তামিল প্রতিবেদনের জন্য আগামী ১৯ নভেম্বর দিন ধার্য করেছেন বলে ট্রাইব্যুনাল সূত্রে জানা গেছে।

গত ২৩ এপ্রিল ঢাকা আইনজীবী সমিতির সদস্য অ্যাডভোকেট আলীম আল রাজি মামলা দায়ের করেন। ওইদিন ট্রাইব্যুনাল পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রানসন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটকে তদন্তের নির্দেশ দেন। গত ১০ সেপ্টেম্বর এসআই পার্থ প্রতীম ব্রহ্মচারী অভিযোগের সত্যতার প্রমাণ পাওয়া গেছে মর্মে প্রতিবেদন দাখিল করেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সেফাত উল্লাহ ওরফে সেফুদা অনলাইনে একাধিকবার বিভিন্নভাবে একাধিক ভিডিও আপলোড করেছেন, যা ভাইরাল হয়েছে। তিনি এসব ভিডিওর মাধ্যমে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ অনেকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন কুরুচিপূর্ণ, অশ্লীল ও আক্রমণাত্মক ভাষায় গালিগালাজ করেছেন যা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ এর ২৫/২৯/৩১ ধারার অপরাধ।

বাদী অভিযোগে বলেন, গত ৯ এপ্রিল সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দেখতে পান যে, অসিট্রয়ার ভিয়েনা প্রবাসী সেফুদা তার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে লাইভে এসে পবিত্র কোরআন সম্পর্কে বিভিন্ন ধরনের বাজে কথা বলছেন এবং কোরআনকে অবমাননা করছেন, যা সমগ্র ইসলামী বিশ্বকে মারাত্মকভাবে আহত করছে। আসামি একইভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে বিভিন্ন সময় লাইভে এসে কুরুচিপূর্ণ, অশ্লীল, আক্রমণাত্মক ও অকথ্য ভাষায় গালাগাল করেছেন। তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে নিয়েও কটূক্তি করেছেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ