,



প্রতিবছর একটি করে দিবা-রাত্রির টেস্ট চান সৌরভ

দিবা-রাত্রির টেস্টের যাত্রা শুরু হয়েছে ২০১৫ সালে। অথচ বিশ্ব ক্রিকেটের শক্তিশালী দেশ ভারত এখন পর্যন্ত দিবা-রাত্রির কোনো টেস্ট ম্যাচ খেলেনি। শুরু থেকেই এর বিরোধীতা করে আসছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। অথচ মাত্র ১০ মাসের জন্য বিসিসিআই সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পরের সপ্তাহেই ভারতীয় ভাবনায় দিবা-রাত্রির টেস্ট নিয়ে এসেছেন সৌরভ গাঙ্গুলী। বিসিসিআইয়ের সভাপতি হিসেবে এটাই তার প্রথম চমক।

দায়িত্ব নেয়ার পর প্রথম সপ্তাহেই ভারতের মাটিতে প্রথমবারের মত দিবা-রাত্রির টেস্ট আয়োজনের ঘোষণা দেন বিসিসিআই বস। শুধু তাই নয়, এখন আরো এক ধাপ এগিয়ে গিয়ে বলেন, তিনি ভারতীয় ক্রিকেট ক্যালেন্ডারে নিয়মিতভাবে গোলাপি বলের টেস্ট চান।হিন্দুস্তান টাইমসকে গাঙ্গুলী বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করব ভারতের মাটিতে প্রতি বছর একটি দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলতে। এটা নিশ্চিত। ভারতীয় দল যখন বিদেশ সফরে যাবে আমরা সে দেশের বোর্ডের সঙ্গে কথা বলবো এবং দেখবো একটা দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলা যায় কি-না।’

আগামী ২২ কলকাতার ইডেন গার্ডেনে প্রথমবারের মতো দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ আর ভারত। ২০১৫ সালে শুরু হওয়ার পর এ পর্যন্ত ৮টি দেশ দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলেছে। কিন্তু ভারত-বাংলাদেশ খেলেনি। অস্ট্রেলিয়া সফরে একটি দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলার প্রস্তাব পেয়েও তা প্রত্যাখ্যান করে বিসিসিআই। একইভাবে বাংলাদেশও চলতি বছর নিউইজিল্যান্ডে দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলতে চায়নি। তবে এবারের সফরে বিসিসিআইয়ের কাছ থেকে প্রস্তাব পাওয়ার পর দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলতে রাজি হয়েছে বিসিবি। টেস্ট ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা ধরে রাখতে দিবা-রাত্রির ম্যাচকে গুরুত্বপূর্ণ কৌশল হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ