,



(FILES) In this file photo taken on December 24, 2019 US President Donald Trump makes a video call to the troops stationed worldwide at the Mar-a-Lago estate in Palm Beach Florida. - Canada's national public broadcaster confirmed on December 26 that it had cut out US President Donald Trump's cameo from the movie "Home Alone 2," but said after a social media outcry that the edit was made before he was elected. (Photo by Nicholas Kamm / AFP)

মার্কিন দূতাবাসে হামলায় ইরানকে দায়ী করলেন ট্রাম্প

বাগদাদে মার্কিন দূতাবাসে হামলার জন্য ইরানকে দায়ী করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর আগে ইরান-সমর্থিত কয়েক ডজন শিয়া মিলিশিয়া দূতাবাসে ঢুকে হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছেন।

তিনি বলেন, এখন মার্কিন দূতাবাসে হামলা চালাচ্ছে ইরান। এই হামলার জন্য তারা দায়বদ্ধ থাকবে।

এদিকে বাগদাদে মার্কিন দূতাবাসে মঙ্গলবার হামলা ভাঙচুর চালিয়েছে ইরান-সমর্থিত মিলিশিয়া গোষ্ঠীর সমর্থকরা। যুক্তরাষ্ট্রের হামলায় কয়েক ডজন মিলিশিয়া যোদ্ধা নিহত হওয়ার পর ক্ষুব্ধ বিক্ষোভকারীরা এ সময় আমেরিকার ধ্বংস কামনা করে স্লোগান দেন।

সামরিক শাখার লোকজন এসব তল্লাশিচৌকি অতিক্রম করে দূতাবাসের বাইরের দেয়াল পর্যন্ত পৌঁছান। তারা দূতাবাসে ভাঙচুর চালান। ইরাকি নিরাপত্তা বাহিনীর কাছ থেকে এ সময় কোনো প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি।

এ সময় ইরাকি সশস্ত্র গোষ্ঠী হাশেদ আল-শাবির সমর্থনে পতাকা দোলাতে দেখা গেছে বিক্ষোভকারীদের। এই সশস্ত্র গোষ্ঠীটি প্রতিবেশী ইরানে সামরিক প্রশিক্ষণ নিয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

তারা দূতাবাসের ভেতরে পাথর নিক্ষেপ করেছেন। দেয়ালের নিরাপত্তা ক্যামেরা ভেঙে ফেলেছেন। মেগাফোনে তাদের দূতাবাস ছাড়তে অনুরোধ করলেও তাতে গুরুত্ব দেয়া হয়নি।

জবাবে মার্কিন মেরিন প্রহরীরা প্রথমে এলোপাতাড়ি গুলি করেন। পরে কাঁদানে গ্যাস এবং বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করে দিতে স্টান গ্রেনেড নিক্ষেপ করেন।

হাশেদ বলছে, এতে অন্তত ২০ জন লোক আহত হয়েছেন।

ইরাকের তত্ত্বাবধায়ক প্রধানমন্ত্রী আদেল আবদেল মাহদি বলেন, মার্কিন দূতাবাসে ঢোকা বিক্ষোভকারীদের অতিসত্বর বের হয়ে যেতে হবে।

মার্কিন বিমান হামলার জেরে কাতায়েব হিজবুল্লাহর কমান্ডার আবু মাহদি আল মুহানদিস হুমকি দিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্র ওই মিলিশিয়া গোষ্ঠীকে ইরাকে কিরকুকের একটি সামরিক ঘাঁটিতে রকেট হামলার জন্য দায়ী করেছে।ওই রকেট হামলায় এক মার্কিন ঠিকাদার নিহত হওয়ার পরই ইরাক এবং সিরিয়ায় কাতায়েব ঘাঁটিতে ওই বিমান হামলা চালায় যুক্তরাষ্ট্র।

তবে ইরাকের প্রধানমন্ত্রী আদেল আবদুল মাহদি এ বিমান হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেছেন, এতে ইরাকের সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘিত হয়েছে। এর জেরে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্কর বিষয়টি ইরাক নতুন করে ভেবে দেখতে বাধ্য হবে বলেও জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ