,



সারাদেশেই বই মেলার আয়োজন করা হোক

অমর একুশে গ্রন্থমেলা, ব্যাপকভাবে পরিচিত একুশে বইমেলা, স্বাধীন বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী মেলাগুলোর অন্যতম। প্রতি বছর পুরো ফেব্রুয়ারি মাস জুড়ে এই মেলা বাংলা একাডেমির বর্ধমান হাউজ প্রাঙ্গণে ও বর্ধমান হাউজ ঘিরে অনুষ্ঠিত হয়। ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দ থেকে অমর একুশে গ্রন্থমেলা বাংলা একাডেমির মুখোমুখি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সম্প্রসারণ করা হয়েছে। তবে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গনেও মেলার একটি অংশ আয়োজন করা হয় আর চলে পুরো একমাস জুড়ে ভাষা শহীদের স্মরণে।যার ব্যতিক্রম ঘটেনি এবারও ২তারিখ থেকে শুরু হয়ে চলে ২৯ তারিখ পযন্ত । এই মেলার জন্য মুখিয়ে থাকে দেশের হাজারো লেখক,লেখার মাধ্যমে তাদের মনের ভাব প্রকাশ করতে৷ শুধু লেখক নয় দেশের পাঠক তারাও থাকে তাদের মনের মতো বই ক্রয় করতে তাদের মনের চাহিদা পূর্ণ করতে বই পড়ে। আমরা সকলে এটা জানি শিক্ষা জাতির মেরুদণ্ড আর শিক্ষা গ্রহণ করার সবচেয়ে ভাল মাধ্যম বই পড়া তাই তো দেশের সকলের কাছে বই পৌঁছে দিতে প্রতি বছর আয়োজন করা হয় অমর একুশে বইমেলার। তবে এই বইমেলা শুধু শহর এর মাঝে সীমাবদ্ধ থাকার কারণে অনেক মানুষের কাছে বই পৌঁছে দেয়া যায় না আবার অনেকে আসতে পারে না দূরত্ব বেশি থাকার কারণে। অনেক শিশু কিংবা ক্ষুধে পাঠক আছে যারা ইচ্ছে থাকা সত্যেও মেলাতে আসতে পারে না৷ এমন অনেক অজপাড়া আছে যেখানে এই বইমেলার সুফল পাছে না শহর থেকে দূরে বসবাস করার কারণে। জাতিকে সুশিক্ষিত করতে হলে প্রথমেই তাদের বই পড়ার অভ্যাস গড়ে তোলতে হবে। এর জন্য প্রয়োজন বই এর সহজলভ্যতা এবং হাতের কাছে পৌঁছে দেয়া।

এমন অবস্থায় একুশে বইমেলার মতো সারা দেশজুড়ে প্রতিটি জেলা এবং উপজেলায় কমপক্ষে তিনদিন করে বইমেলার আয়োজন করতে হবে সরকার কিংবা সংশ্লিষ্টদের কাছে আবেদন রইলো । সেই সাথে যদি সম্ভব হয় তবে প্রতিটি স্কুল কলেজের বার্ষিক অনুষ্ঠানের সঙ্গে বইমেলার আয়োজন করা। এতে যেমন তরুণ প্রজন্মের বইপড়ার আগ্রহ বাড়বে তেমনি প্রকাশ গুলা অর্থ নৈতিক সাবলীল হবে আর দেশ গড়ে উঠবে শিক্ষিত জাতি হিসাবে।

লেখকঃ ইমরান হাসান, গাজীপুর ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ